গজারিয়ায় স্ত্রী,শ্যালক ও শশুরের নির্যাতনে স্কুল শিক্ষকের আত্মহত্যা

গজারিয়া(মুন্সীগঞ্জ) প্রতিনিধি

গজারিয়া উপজেলার বালুয়াকান্দিতে স্ত্রীর সঙ্গে ঝগড়ার জের ধরে শশুর বাড়ির লোকজনের মারধরের শিকার হয়ে কীটনাশক পান করে সোলায়মান ফরাজী (৩০) নামে এক স্কুল শিক্ষক আত্মহত্যা করেছে। শুক্রবার দিবাগত রাতে উপজেলার বালুয়াকান্দি ইউনিয়নের আতিকনগর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

সোলায়মান ফরাজী একই গ্রামের আব্দুল মালেক ফরাজীর ছেলে। সে কুমিল্লার মেঘনা উপজেলার ফুলতলী মোজাফ্ফর আলী হাই স্কুলের সহকারী শিক্ষক। তার স্ত্রী মহাসীনা সরকার একই গ্রামের মনসুর আলী সরকারের মেয়ে। সম্প্রতি তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্কের পর বিয়ে হয়।

সোলায়মানের বড় ভাইয়ের স্ত্রী শাহজাদী জানান, শুক্রবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে আতিকনগর গ্রামের নিজ বাড়িতে স্কুল শিক্ষক সোলায়মান ফরাজী ও তার স্ত্রী মহাসীনা সরকারের মধ্যে ঝগড়া হয়।

খবর পেয়ে শ্বশুর মুনসুর সরকার ও শ্যালক মহিববুল্লাহ ছুটে এসে স্কুল শিক্ষক সোলায়মানকে মারধর করে।

শশুর বাড়ির লোকজনের মারধর শিকার হওয়ার পর ওই স্কুল শিক্ষক নিজ বাড়িতে কীটনাশক পান করে।

শুক্রবার রাত ১১টায় গজারিয়া উপজেলা হাসপাতালে নেয়ার পরে কর্তব্যরত চিকিৎসক বিষমুক্ত করে ঢাকা মেডিকেলে স্থানান্তর করে। পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে রাত সাড়ে ১২টার দিকে সেখানকার কর্তব্যরত ডাক্তার মৃত ঘোষণা করেন।

গজারিয়া থানার ওসি মো. হারুন-অর-রশিদ জানান, এ ঘটনায় গজারিয়া থানায় কেউ অভিযোগ দেয়নি। তবে আত্মহত্যার প্ররোচনার অভিযোগে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

আস/এসআইসু

Facebook Comments Box