খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য কিছুই করছে না বিএনপি

আলোকিত সকাল ডেস্ক

বিএনপি খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য কিছুই করছে না বলে আক্ষেপ প্রকাশ করলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান। তিনি বলেন, খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য বিএনপি কিছুই করছে না বা করতে পারছে না। এই দেশের জনগণ গণতন্ত্রের জন্য স্বাধীনতা সংগ্রাম করেছেন, জীবন দিয়েছেন কিন্তু আজ স্বাধীন দেশে গণতন্ত্র নেই। আজ গণতন্ত্রকে মুক্ত করতে হলে গণতান্ত্রিক আন্দোলনে বারবার নেতৃত্ব দিয়ে বিজয়ী হওয়া সেনাপতি বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে হবে।

বৃহস্পতিবার (১৬ মে) জাতীয় প্রেসক্লাবে ঐতিহাসিক ফারাক্কা দিবস উপলক্ষে জাতীয়তাবাদী কৃষক দল আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

নজরুল ইসলাম খান বলেন, আমরা যারা এখানে বসে আছি, তারা সবাই বলছি, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য কি করা দরকার। এ নিয়ে বহু আলোচনা করছি। কিন্তু আসলে কিছুই করছি না। কি করা দরকার, এ বিষয়ে কারও বুদ্ধির অভাব নেই। তবে সেই বুদ্ধির কাজটা করার মতো কোন উদ্যোগ নাই! খুবই অন্যায়ভাবে প্রতিহিংসাপরায়ণ হয়ে শুধুমাত্র রাজনৈতিক স্বার্থ হাসিলের লক্ষ্যে সরকার খালেদা জিয়াকে আটকে রেখেছে।

নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে নজরুল ইসলাম খান বলেন, এখানে একজন বলেছেন, আত্মাহুতি দেয়া দরকার। আত্মাহুতি দেয়ার জন্য কারও অনুমতি লাগে না কি? আমি যদি আত্মাহুতি দিতে চাই তাহলে একা একাই আত্মাহুতি দিতে পারি। কিন্তু আপনার মৃত্যু তো আমার চাওয়া না। আমার চাওয়া হলো খালেদা জিয়ার মুক্তি। আর বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য আপনার মরার দরকার নেই। শুধু সাহস করে রাস্তায় আসেন। চলেন এক সঙ্গে রাস্তায় নেমে মিছিল করি। তাহলেই বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি হবে।

ফারাক্কা বাঁধের বিষয়ে তিনি বলেন, কেন আজকে আমরা ফারাক্কা বাঁধ ও মাওলানা ভাসানীর কথা মনে করবো? কারণ পরীক্ষামূলকভাবে চালু করা এই ফারাক্কা বাঁধ, সেই পরীক্ষা আজ পর্যন্ত শেষ হলো না!

‘সরকার উন্নয়ন উন্নয়ন বলে গলা ফাটাচ্ছে। দেশে উন্নয়ন হচ্ছে কিন্তু তা অসম উন্নয়ন। যারা ধনী তারা আরও ধনী হচ্ছে। এদেশে বর্তমানে ধনীরা যে হারে আরও ধনী হচ্ছে সে হারে চীন ও আমেরিকার ধনীরাও ধনী হচ্ছে না। এরকম অসম উন্নয়ন অব্যাহত থাকলে একসময় দেশে বিলাসবহুল পণ্যের ছাড়াছাড়ির সঙ্গে গরিবের লাশের ছড়াছড়ি দেখা যাবে।’

আলোচনা সভায় বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান বেগম সেলিমা রহমান অভিযোগ করেন, সরকারের দেশ প্রেম না থাকায় তিস্তা চুক্তির সুরাহা হয়নি। দেশ প্রেমিকরা বাংলাদেশ শাসন করছে না। যারা এদেশকে শাসন করছে তারা একটি দেশের আজ্ঞাবহ দাস। সেজন্য গত ১০ বছরেও তিস্তা চুক্তির কোনো হাল হয়নি।

তিস্তা চুক্তিসহ ভারতের সঙ্গে অভিন্ন নদীর পানির ন্যায্য হিস্যা আদায়ের জন্য দেশে প্রেমিক সরকারের প্রয়োজনীয়তা উল্লেখ করে সেলিমা রহমান বলেন, দেশ প্রেমিক সরকার ছাড়া জনকল্যাণ হয় না। এক্ষেত্রে আমাদের একমাত্র সহায়ক দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া।

সুশাসন গণতন্ত্রের জন্য বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে হবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, তাকে যদি আমরা ঐক্যবদ্ধভাবে মুক্ত করে না আনতে পারি, তাহলে বাংলাদেশে সুশাসন আসবে না, গণতন্ত্র আসবে না। তাই আসুন ঐক্যবদ্ধ ভাবে আন্দোলনের মাধ্যমে আমরা তাকে মুক্ত করি।

সরকারের বিরুদ্ধে ইতিহাস বিকৃতির অভিযোগ এনে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান বলেন, ঐতিহাসিক ফারাক্কা দিবস এর মতো বিশেষ বিশেষ দিবস পালনের মাধ্যমে নতুন প্রজন্মকে বাংলাদেশের ইতিহাসের প্রকৃত তথ্য জানাতে হবে।

জাতীয়তাবাদী কৃষক দলের আহবায়ক শামসুজ্জামান দুদুর সভাপতিত্বে এবং সদস্য সচিব হাসান জাফির তুহিনের পরিচালনায় কেন্দ্রীয় সদস্য এস কে সাদীর সঞ্চালনায় অন্যদের মধ্যে বক্তৃতা করেন- বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান, উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য নাজমুল হক নান্নু, যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, নির্বাহী কমিটির সদস্য তকদির হোসেন জসিম, নাজিম উদ্দিন মাস্টার প্রমুখ। ‌

আস/এসআইসু

Facebook Comments