খাদ্যে ভেজাল প্রতিরোধে প্রয়োজনে মৃত্যুদণ্ড : খাদ্যমন্ত্রী

আলোকিত সকাল ডেস্ক

খাদ্যে ভেজাল প্রতিরোধে প্রয়োজনে নিরাপদ খাদ্য আইন সংশোধন করে শাস্তির মাত্রা বাড়িয়ে যাবজ্জীবন বা মৃত্যুদণ্ডের বিধান করা হবে বলে জানিয়েছেন খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার।

রবিবার (১২ মে) সচিবালয়ের সামনে রমজান উপলক্ষে নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিতকরণে বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের সুসজ্জিত মোবাইল ভ্যানের মাধ্যমে ঢাকা মহানগরীতে প্রচার-প্রচারণার উদ্বোধন শেষে এ কথা বলেন খাদ্যমন্ত্রী।

খাদ্য ভেজাল প্রতিরোধে আইন সংশোধন করে শাস্তির বাড়ানোর বিষয়ে এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, প্রচলিত আইনে শাস্তির যে বিধান রয়েছে দরকার হলে আইন সংশোধন করে শাস্তির মাত্রা বাড়ানো হবে। দরকার হলে শাস্তির মাত্রা বাড়িয়ে যাবজ্জীবন বা মৃত্যুদণ্ড করা হবে।

যারা খাদ্যে ভেজাল মেশায় তারা সমাজ ও মানবতার শত্রু বলে মন্তব্য করে খাদ্যমন্ত্রী বলেন, যারা খাদ্যে ভেজাল মেশায় তাদের বিরুদ্ধে বর্তমান সরকার জিরো টলারেন্স নীতি গ্রহণ করেছে। শুধু রমজান মাসেই নয়, আমরা চাই ১২ মাসই জনগণ নিরাপদ খাদ্য খাবে। রমজান মাসে ভেজালবিরোধী অভিযানে নিয়মিতভাবে মোবাইল কোর্ট পরিচালিত হচ্ছে জানিয়ে খাদ্যমন্ত্রী বলেন, প্রয়োজনে মোবাইল কোর্টের সংখ্যা বাড়ানো হবে।

খাদ্যে ভেজালের বিষয়ে নিজেদের মধ্যে আরও সচেতনতা বাড়ানো জরুরি বলে মনে করেন খাদ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, খাদ্যে ভেজালকারীদের বিরুদ্ধে সবাই মিলে একযোগে, এক হয়ে কাজ করে এটিকে সামাজিক আন্দোলনে রূপান্তরিত করতে হবে।

তিনি আরও বলেন, আতঙ্কিত না হয়ে ভেজাল প্রতিরোধে নিজেরা যদি আরও সোচ্চার হই তাহলে ভেজালমুক্ত নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিত করা সম্ভব। মন্ত্রী ভেজালমুক্ত খাবার নিশ্চিতকরণে জনসচেতনতা বাড়িয়ে গণআন্দোলন গড়ে তুলতেও সবার প্রতি আহ্বান জানান।

এ সময় উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন- বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান মাহফুযুল হক, খাদ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব একে আজাদ প্রমুখ।

আস/এসআইসু

Facebook Comments