কৃত্রিম দ্বীপ নির্মাণের পথে চীন

আলোকিত সকাল ডেস্ক

দক্ষিণ চীন সাগর ঠিক কার দখলে থাকবে, এখনও তা নিয়ে ঠান্ডা লড়াই অব্যাহত আছে। যে কারণে চীনকে কৃত্রিম দ্বীপ নির্মাণের প্রকল্প বাতিল করতে বলেছিল যুক্তরাষ্ট্র। এবার সেই হুঁশিয়ারি উপেক্ষা করে চীনের পক্ষ থেকে জানানো হল, কৃত্রিম দ্বীপ নির্মিত শেষ না হওয়া পর্যন্ত তারা এ প্রকল্পের কাজ অব্যাহত রাখবে।

চীনা পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, কৃত্রিম এই দ্বীপটি মূলত দেশের প্রতিরক্ষার কাজে ব্যবহার হলেও দুর্যোগ মোকাবিলা থেকে শুরু করে বৈজ্ঞানিক গবেষণাসহ নানা কাজে এটি ব্যবহৃত হবে। তাছাড়া যেকোনো আপৎকালীন পরিস্থিতি সামাল দেওয়াই হচ্ছে এই প্রকল্পের প্রধান উদ্দেশ্য বলে দাবি বেইজিংয়ের।

চীন তাদের সমুদ্রসীমায় কৃত্রিম যে দ্বীপটি নির্মাণ করতে যাচ্ছে, তার প্রথম খবর প্রকাশ করেছিল ভিয়েতনাম। মূলত এর পরপরই বিষয়টি ট্রাম্প প্রশাসনের নজরে আসে। পরবর্তীতে মার্কিন স্যাটেলাইটে ধরা পড়ে কৃত্রিম এই দ্বীপটির বেশকিছু ছবি। যেখানে দ্বীপটির অনেকখানি কাজই সম্পন্ন করা হয়েছে বলে দাবি যুক্তরাষ্ট্রের।

এ দিকে দক্ষিণ চীন সমুদ্রে চীনা কর্তৃপক্ষের দখলদারির প্রয়াস দীর্ঘদিন যাবত প্রতিহতের চেষ্টা করছে ভিয়েতনাম। যে কারণে চীন ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রর মধ্যে বর্তমানে এ নিয়ে একটি নেতিবাচক পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে। গত মঙ্গলবার (২১ মে) চীনা পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এ বিষয়ে নিজেদের অবস্থান পরিষ্কার করেছে। মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, যদিও এই নির্মাণকাজ ঠিক কবে নাগাদ শেষ হবে; তা এখনই প্রকাশ করা সম্ভব নয়। তবুও আমরা কারো কিংবা কোনো দেশের চোখ রাঙানি কখনোই মেনে নিব না।

আস/এসআইসু

Facebook Comments