কিছুতেই থামছে না এম.বি.বি.এস দাবিদার সেই তিন ভূয়া চিকিৎসকের অপচিকিৎসা

স্টাপ রির্পোটার

নেত্রকোণার দুর্গাপুরের কাকৈরগড়া ইউনিয়নের নগুয়া বাজারে এম.বি.বি.এস দাবিদার তিন ভূয়া ডাক্তারের চলছে রমরমা প্রতারনা বাণিজ্য। তারা দীর্ঘ দিন যাবৎ নগুয়া বাজারে নিজেদের ডাক্তার পরিচয় দিয়ে, সাইন বোর্ড, ব্যানার, ফেসটুন এর মাধ্যমে নিজেদের প্রচার- প্রসার চালাচ্ছেন। সাইবোর্ডে তারা লিখেছেন ডাঃ মাওঃ আবু তাহের, ডাঃ মোঃ ইউছুফ (হক মিয়া), ডাঃ মোঃ সামছুল আলম।

জানা গেছে, যদিও তারা কোন এম.বি.বি.এস বা বিডিএস ডিগ্রীধারী নন তারপরও নিজেদের নামের আগে ডাঃ শব্দটি ব্যবহার করে চিকিৎসার নামে অপচিকিৎসা দিয়ে যাচ্ছেন। প্রচার করে বেড়াচ্ছেন, তারা সব ধরনের চিকিৎসা দিতে সক্ষম। গাইনী, চর্ম ও যৌন, নাকের পলিপাসের অপারেশন, দাতের চিকিৎসা, মেডিসিন, শ্বাশ্ব কষ্ট, হার্টের সমস্যা সহ সব ধরনের চিকিৎসা কোন প্রকার পরীক্ষা-নিরীক্ষা ছাড়াই এসব রোগের চিকিৎসা দেন এই তিন ভূয়া ডাক্তার। যদিও সরকারী নীতি মালা অনুযায়ী এম.বি.বি.এস বা বিডিএস ডিগ্রী ছাড়া কেউ ডাঃ শব্দটি ব্যবহার করতে পারবে না।

তারপরও সরকারী নীতিমালা অমান্য করে চিকিৎসার নামে অপচিকিৎসা দিয়ে যাচ্ছেন, এই তিন ভূয়া চিকিৎসা। তাদের কাছে, রোগী আসলে তারা আনুমানিক ঔষধ লিখে, নিজেরাই ঔষধ বিক্রি করেন। প্রত্যেক রোগীর কাছ থেকে এসব ঔষধ বাবদ হাতিয়ে নিচ্ছেন হাজার হাজার টাকা। জানা গেছে, বিভিন্ন ঔষধ কোম্পানির রিপরেজেন্টিভদের সাথে সিন্ডিকেট বানিজ্যের মাধ্যমে ফিজিশিয়ান সিম্পল ঔষধ সংগ্রহ করে তা বিক্রি করে থাকেন, ডাঃ পরিচয় দানকারী আবু তাহের, মোঃ ইউসুফ (হক মিয়া), সামছুল আলম। যদিও ফিজিশিয়ান সিম্পুল ঔষধ বিক্রয় আইনত দন্ডনীয় অপরাধ, জানাগেছে নানা অনিয়মে অভিযুক্ত এই তিন ভূয়া চিকিৎসক স্থানীয় এম.পির নাম ভাঙ্গীয়ে বীর র্দপে এইসব প্রতারণা বানিজ্য। এদিকে ব্যাপক অনুসন্ধানে জানা গেছে এই তিন ভূয়া চিকিৎসকের কাছে সংরক্ষিত ফিজিশিয়াল সিম্পুল ঔষধ মেয়াদ উর্ত্তীণ থাকার এসব ঔষধ খেয়ে মানুষ মারাত্মক অসুস্থ হয়ে জীবন বাঁচাতে ছুটছেন ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে।

জীবন মৃত্যুর সন্ধাক্ষণ থেকে ফিরে আসা নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েক জন ভোক্তভোগী জানান, ডাঃ ইউসুফ (হক মিয়া) ৭ দিনের এন্টিবাইটিক ঔষধ দিয়ে বলেছিলেন ৩ দিনের মধ্যে সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে, কিন্তু ফলাফল এর উল্টো তিন দিন না পার হতেই রোগীর মাথা ভার ভার অনুভব শুরু হয়, পরে দ্রুত তিনি ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের যান। এদিকে দীর্ঘদিন যাবৎ এই তিন ভূয়া চিকিৎসকের অপচিকিৎসা বন্ধ করনে, সরকারী নিতিমালা অনুযায়ী নেত্রকোণা জেলা সিভিল সার্জনের প্রতি জোর দৃষ্টি জানিয়েন এলাকাবাসী সচেতন মহল।

আস/এসআইসু

Facebook Comments Box