কালীগঞ্জে জমির জের ধরে মধ্যরাতে ডাকাতি ও বাড়ি ভাংচুর

নূর আলমগীর অনু

লালমনিরহাট জেলার কালীগঞ্জে মদাতী ইউনিয়নের বাবুর ডাঙ্গায় জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে জমি বে-দখল, বাড়িঘর ভাংচুর, লুটপাট ওচলাচলের রাস্তা বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

অভিযোগের ভিত্তিতে সরে- জমিনে তদন্ত করে জানা গেছে ২ রা এপ্রিল মধ্যরাতে মৃত আব্দুল জলিলের পুত্র আব্দুল হামিদ (৫৫) এর নেতৃত্বে আফজাল হোসেনের পুত্র সাহাবুল আলম (৪০) প্রায় ১৫ জনের একটি সন্ত্রাসী দল আব্দুর রহিমের বাড়িতে ডাকাতি কায়দায় বাড়ির দরজা, জানালা, টিনের বেড়া ভাংচুর করে নগদ ৪ লক্ষ ৬৬ হাজার টাকা ,২ ভরি স্বার্নালংকার লুটপাট করিয়া আব্দুর রহিম সহ সকল সদস্যকে জখম করে ভুট্টা খেতে ফেলিয়া যায়। স্থানীয় জনগন আব্দুর রহিমকে কালীগঞ্জ উপজেলা কমপ্লেক্স ভর্তি করিয়া দেন।

গত ৩ রা এপ্রিল আব্দুর রহিমের বড় ছেলে আসাদুজ্জামান ৯ জনকে আসামী করে কালীগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা নং জি আর /৯৬/১৯কালীগঞ্জ। তাং ৩/৪/২০১৯ইং।

মামলা দায়ের এর পর আব্দুর রহিমসহ পরিবারের কেউই আসামীদ্বয়ের হুমকির কারনে বাড়িতে রাত্রী যাপন করিতে পারছে না। এলাকার একটি প্রভাবশালী মহলের ইঙ্গিতে আসামীগণ প্রকাশ্য দিবালোকে ঘুরে বেড়ালেও পুলিশ রহস্যজনক কারনে আসামিদের গ্রেফতার করছে না।

গত ২০১৬ সালের আগস্ট মাসে মদাতি ইউনিয়নের আফজাল হোসেনের পুত্র সাহাবুল আলম সাবু লালমনিরহাট আদালতে একটি সি আর মামলা দায়ের করেন, মামলা নং সি আর ১০২/২০১৬ কালীগঞ্জ। উক্ত মামলায় ২২ শে ফেব্রুয়ারি/২০১৮ ইং তারিখে চুড়ান্ত রায়ে সাহাবুল আলম সাবু হেরে গেলে রায়ের পর সে জোরপূর্বক দলবলে আব্দুর রহিমের বাঁশঝাঁড়, বাগান, বাড়ী, জমি দখলে নেন।

আব্দুল হামিদ সরকার এ বিষয়ে বলেন যাতায়াতের রাস্তা আমরা বন্ধ করিনি। দশের লোকজন করেছেন। আর মামলাটি মিথ্যে বলেও তিনি জানান।

আস/এসআইসু

Facebook Comments