কাজে গতি আনতেই মন্ত্রিসভায় রদবদল

আলোকিত সকাল ডেস্ক

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহণ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, কাজের গতি ও সুবিধার জন্যই প্রধানমন্ত্রী মন্ত্রিসভার পুনর্বিন্যাস করা হয়েছে।

সোমবার (২০ মে) সকালে রাজধানীর সেতু ভবনে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা জানান।

মন্ত্রীসহ সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের বড় কর্মকর্তারা সৎভাবে চললে দুর্নীতি অর্ধেক কমে যাবে বলেও মন্তব্য করেন ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, ‘কাজের সুবিধার জন্য পুনর্বিন্যাস, পুনর্গঠন অনেক সময় প্রয়োজন হয়ে পড়ে। সেজন্য প্রধানমন্ত্রী সময়ের চাহিদা অনুযায়ী বাস্তবতাকে আলিঙ্গন করবেন। সেজন্যই এ ধরনের ব্যবস্থা নেয়া।’

তিনি বলেন, ‘এবার মহাসড়কে ঈদযাত্রায় সামান্যতম দুর্ভোগ হবে না। ২০২০ সালের মধ্যে ঢাকা এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ের কাজ শেষ হবে।’

বিএনপির সংসদে যাওয়ার সিদ্ধান্তকে সাধুবাদ জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, স্থানীয় জনগণের চাপেই সংসদে গেছে বিএনপি। তবে বার্তা দেশে-বিদেশে পৌঁছাতে মির্জা ফখরুলেরও সংসদে যোগ দেয়া উচিত ছিল।

প্রসঙ্গত, গতকাল রোববার মন্ত্রিসভার দায়িত্ব পুনর্বন্টন করা হয়েছে। এতে, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসানকে তথ্য মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রী মোস্তফা জব্বারকে একই মন্ত্রণালয়ের অধীন ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের মন্ত্রী করা হয়েছে। এ মন্ত্রণালয়ের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন জুনাইদ আহমেদ পলক।

এছাড়া স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের অধীন স্থানীয় সরকার বিভাগের মন্ত্রী করা হয়েছে তাজুল ইসলামকে। একই মন্ত্রণালয়ের পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগের প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব দেয়া হয়েছে স্বপন ভট্টাচার্যকে।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জনের পর মন্ত্রিসভা গঠন করে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ। মন্ত্রিসভায় ২৪ জন মন্ত্রী, ১৯ জন প্রতিমন্ত্রী এবং ৩ জনকে উপমন্ত্রী করে নতুন সরকারের মন্ত্রিসভা গঠিত হয়। এর পাঁচ মাস পরই মন্ত্রিসভায় রদবদল করে রোববার প্রজ্ঞাপন জারি করলো মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ।

আস/এসআইসু

Facebook Comments