করোনা পরীক্ষা করাতে এসে প্রবীণদের চরম ভোগান্তি!

korona-Test
আবুল কাশেম। পুরান ঢাকার বাসিন্দা

করোনা পরীক্ষা করাতে এসে প্রবীণদের চরম ভোগান্তি!

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) উদ্যোগে রাজধানী শাহবাগের বেতার ভবনে স্থাপিত করোনাভাইরাস শনাক্তের নমুনা পরীক্ষা কেন্দ্রের গেটে একটি ব্যানারের সামনে দাঁড়িয়েছিলেন আনুমানিক ৬৫/৭০ বছর বয়সী বৃদ্ধ আবুল কাশেম। পুরান ঢাকার বাসিন্দা এ বৃদ্ধের গত কয়েকদিন ধরে জ্বর-কাশি। এলাকার ফার্মেসি থেকে প্যারাসিটামল নিয়ে খেয়েছেন। এতে জ্বর ভালো হলেও বেড়েছে কাশি। কাশতে কাশতে তার জীবন যায়।

আর তাই বুধবার (২৭ মে) সকালে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত কিনা সন্দেহে নমুনা পরীক্ষা করতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে যান। হাসপাতাল থেকে বলা হয় এখানে পরীক্ষা করতে হলে ভর্তি হতে হবে। কর্তব্যরত চিকিৎসকরা তাকে বিএসএমএমইউতে যাওয়ার পরামর্শ দেন। এখানে আসার পর নিরাপত্তারক্ষীরা তাকে অদূরে টাঙানো ব্যানারটি দেখিয়ে অনলাইনে সিরিয়াল দিয়ে টোকেন নম্বর নিয়ে আসার জন্য পরামর্শ দেন।

এসময় বৃদ্ধ আবুল কাশেম বলছিলেন, ‘এসব অনলাইন তো বুঝিনা, বুড়া মানুষটাকে একটু দয়া করেন, আমার পরীক্ষাটা কইরা দেন।’ এসময় নিরাপত্তারক্ষী তার কাছে হাতজোড় করে বলেন, ‘মুরুব্বি আমাদের কিছু করার নাই।’

এ প্রতিবেদকের সঙ্গে আলাপকালে আবুল কাশেম বলেন, ‘আমাদের মতো বুড়া মানুষগুলোর জন্য সরকার সহজ সিস্টেম চালু করলে ভালো হত। এখন আমি কই যামু, কীভাবে কী করমু, আপনি একটু বইলা দিলে পরীক্ষা কইরা দিব কী?’

করোনাভাইরাসের নমুনা পরীক্ষা করতে গিয়ে আবুল কাশেমের মতো বৃদ্ধরা নানা ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন। অন্যান্য হাসপাতালে বিএসএমএমইউ’র মতো অনলাইনে সিরিয়াল দিতে না হলেও প্রবীণ এই মানুষগুলোকেও সাধারণ মানুষের মতোই দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়ে নমুনা দিতে হয়। রাজধানী ঢাকায় সর্বোচ্চ সংক্রমণ দেখা দেয়ায় বিভিন্ন হাসপাতালে লম্বা লাইন থাকায় এসব প্রবীণদের ব্যাপক ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে। তাদের জন্য নেই কোনো আলাদা লাইন। দীর্ঘক্ষণ লাইনে দাঁড়িয়ে তাদেরকে নমুনা দিতে হচ্ছে।

আজ দুপুরে সরেজমিনে বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের শাহবাগের নমুনা কেন্দ্রের সামনে গিয়ে দেখা যায় নমুনা পরীক্ষা করতে আসা রোগীদের মধ্যে বেশ কয়েকজন প্রবীণ ও মধ্যবয়সী নারী-পুরুষ রয়েছেন। অনেকে দীর্ঘক্ষণ লাইনে দাঁড়িয়ে ক্লান্ত হয়ে রাস্তার ওপর বসে পড়ছেন। নিরাপত্তারক্ষীরা হ্যান্ড মাইকে বারবার সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে এবং অনলাইনে সংগ্রহ করা সিরিয়ালের কাগজ হাতে রাখার জন্য পরামর্শ দিচ্ছেন।

গত ১ এপ্রিল বিএসএমএমইউতে করানোর নমুনা পরীক্ষা কেন্দ্র চালু হয়। স্বাস্থ্য অধিদফতরের তথ্য অনুসারে গতকাল ২৬ মে পর্যন্ত বিএসএমএমইউ’র নমুনা পরীক্ষা কেন্দ্রে ১২ হাজার ৫২৭টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়।

বিএসএমএমইউ’র জনসংযোগ কর্মকর্তা প্রশান্ত কুমার মজুমদার জানান, বিএসএমএমইউতে প্রতিদিন গড়ে ২০০ থেকে ২৫০ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। পরীক্ষা শেষে সেগুলো আইইডিসিআরে পাঠানো হয়। ঈদের ছুটিতেও নমুনা পরীক্ষা কেন্দ্রটি চালু ছিল। তবে ঈদের সময় নমুনা সংগ্রহ ও পরীক্ষার সংখ্যা ছিল তুলনামূলক কম। সর্বশেষ ২৪ ঘন্টায় ৫৬টি নমুনা পরীক্ষা করা হয় এ কেন্দ্রে।

উল্লেখ্য, মহামারি করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত হয়ে দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ২২ জনের মৃত্যু হয়েছে। ফলে ভাইরাসটিতে মৃত্যু সংখ্যা দাঁড়ালো ৫৪৪ জনে। গত ২৪ ঘণ্টায় ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয় আরও এক হাজার ৫৪১ জন। গত ৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনাভাইরাস আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়। আর এ পর্যন্ত করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ৩৮ হাজার ২৯২ জনে।

Facebook Comments Box