কখনোই ক্ষমা চাওয়া হয়নি

আলোকিত সকাল ডেস্ক

মা সব সময় কথায় কথায় আমাকে বলতেন, যখন মা হবি তখন বুঝবি। আমি মা হওয়ার পর সত্যি বুঝতে পেরেছি কেন মা আমাকে এই কথা বলতেন। মা হওয়ার পর প্রত্যেক মেয়ের মধ্যে পরিবর্তন ঘটে। বাস্তবতাও বুঝতে পারে। আজ মাকে প্রতিনিয়ত মিস করি। মা থাকলে হয়তো গাইড লাইনটা আরো ভালো পেতাম। এভাবেই মাকে নিয়ে কথাগুলো বললেন ছোট পর্দার মডেল-অভিনেত্রী নোভা ফিরোজ। আগামীকাল মা দিবস।

এই অভিনেত্রী ২০০৭ সালে তার মাকে হারান। মাকে নিয়ে নোভা আরো বলেন, অনেক সময় ভুল করেছি। মায়ের সঙ্গে রাগ করেছি। কিন্তু কখনোই ক্ষমা চাওয়া হয়নি। আজ মা বেঁচে থাকলে তার কাছে সেই ভুলগুলোর ক্ষমা চেয়ে নিতাম। আমার আজকের এতটুকু আসার পেছনে মায়ের অবদান সবচেয়ে বেশি। মা সব সময় আমাকে সাহস দিতেন। আমার অভিনয়ও পছন্দ করতেন।

এই অভিনেত্রী এখন রমজানের পুরোটা সময় থাকছেন একুশে টিভিতে। এই চ্যানেলের ‘ঝটপট ইফতার’ শিরোনামের একটি অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করছেন তিনি। প্রতিদিন বেলা তিনটায় এটি প্রচার হচ্ছে। পবিত্র মাহে রমজান উপলক্ষে অনুষ্ঠানটি প্রচার হচ্ছে। এটি ছাড়াও নোভা আরো দুটি অনুষ্ঠান নিয়মিত উপস্থাপনা করছেন। এ দুটি হচ্ছে চ্যানেল আইতে ‘যে রাঁধে সে চুলও বাঁধে’ ও বাংলাভিশনে ‘সৌন্দর্য কথা’।

উপস্থাপনা প্রসঙ্গে নোভা বলেন, বাংলাভিশনে ‘সৌন্দর্য কথা’ অনুষ্ঠানটি দীর্ঘদিন ধরে উপস্থাপনা করছি। এটির জন্য দর্শকের কাছ থেকে অনেক সাড়া পাই। চ্যানেল আইয়ের অনুষ্ঠানটিও বেশ মজার। সত্যি বলতে, আমি একটু ভিন্ন ধরনের অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করতে চাই। গতানুগতিক বিষয়গুলো থেকে বের হয়ে দর্শকদের নতুন কিছু দেয়ার প্রচেষ্টা থাকে আমার।

২০০৭ সালের দিকে এই অভিনেত্রী উপস্থাপনা শুরু করেন। ‘বউ কথা’ নামের একটি ফ্যামিলি গেইম শোর মধ্য দিয়ে উপস্থাপনা শুরু করেন তিনি। এদিকে রমজানের পুরোটা সময় তাকে টিভিপর্দায় দেখা গেলেও ঈদে নেই তিনি। কিন্তু কেন? এই প্রশ্নের উত্তরে নোভা বলেন, আমার ছেলে বেশ কিছু দিন অসুস্থ্থ। এই অবস্থায় তাকে রেখে কোথাও লম্বা সময় থাকা যাচ্ছে না। ঈদে কয়েকটি নাটকের প্রস্তাব পেয়েছি। তবে ছেলের অসুস্থতার কারণে সেসবের কোনোটাতেই অভিনয় করছি না। এই অভিনেত্রীর হাতে এখন আছে তিনটি ধারাবাহিক নাটক। এগুলো হচ্ছে ‘পাগলা হাওয়া’, ‘ডিবি’ ও ‘বংশের চাবি’।

ধারাবাহিক নাটকে অভিনয় প্রসঙ্গেও এই অভিনেত্রী কথা বলেন। এ প্রসঙ্গে তার ভাষ্য, আমি একটি প্রতিষ্ঠানে জব করি। জবের পাশাপাশি আমাকে অভিনয় করতে হচ্ছে। সেই কারণে আমাকে খণ্ড নাটকের চেয়ে ধারাবাহিকের দিকে বেশি গুরুত্ব দিতে হচ্ছে। ধারাবাহিকের জন্য নির্দিষ্ট সময় আগে থেকে দেয়া থাকে। খণ্ড নাটকে হঠাৎ করেই সিডিউল দিতে হয়। নোভার ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা কি? এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, আমার ছেলেকে নিয়ে এই সময়ে ভালো আছি। তার ভবিষ্যৎটা যেন সুন্দর হয় আমি সেটা চাই।

এ ছাড়া আমার কাজ-ক্যারিয়ার ও সন্তান নিয়ে ব্যস্ত সময় যাচ্ছে এখন। আমি চাই সামনে আরো ভালো ভালো কাজ করতে। সেটা উপস্থাপনা হোক কিংবা অভিনয়। এমন কাজ করতে চাই যার মাধ্যমে দর্শকরা দীর্ঘদিন আমাকে মনে রাখবে।

আস/এসআইসু

Facebook Comments Box