এবারের ঈদযাত্রা ইতিহাসের সবচেয়ে স্বস্তিদায়ক

আলোকিত সকাল ডেস্ক

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের নির্দেশের পর ঈদযাত্রায় যাত্রী পরিবহনে গাবতলীতে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ-বিআরটিএ’র নির্দিষ্ট ভাড়ার তালিকা ঝুলানোর নিদের্শনা জারি করেছে প্রতিষ্ঠানটি।

শুক্রবার (৩১ মে) গাবতলীতে ঈদযাত্রা নির্বিঘ্ন করতে বিআরটিএ’র মোবাইল কোর্টের কার্যক্রম পরিদর্শন শেষে এক প্রেস বিফ্রিংয়ে এ বিষয়ে সাংবাদিকরা মন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করলে তিনি এমন নির্দেশনা দেন।

এ সময় তিনি বলেন, এসি গাড়ির ভাড়া যাতে ফ্রিস্টাইল না হয় এ জন্য আমি বিআরটিএকে বলবো। পরে গাবতলী বাস টার্মিনালের মাইক থেকে প্র্রত্যেক পরিবহনকে বিআরটিএ ভাড়ার তালিকা মেনে চলার নির্দেশনা দেয়া হয়।

‘গাবতলীতে কোথাও বিআরটিএ’র দেয়া ভাড়ার তালিকা নেই কিন্তু মালিক সমিতির ভাড়ার তালিকা আছে। ফলে যাত্রীরা বলছে, দ্বিগুণেরও বেশি ভাড়া নেয়া হচ্ছে। এ ব্যাপারে মন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে তিনি বিআরটিএ কর্তৃপক্ষকে তাদের দেয়া ভাড়ার তালিকা প্রত্যেকটি পরিবহনকে অনুসরণ করার নির্দেশ দেন। এ সময় তিনি বলেন, ‘‘বিআরটিএ চেয়ারম্যানকে আবারও বলছি, আপনি প্রত্যেকটি কাউন্টারে গিয়ে ভাড়ার তালিকা ইনপোস করুন। বিআরটিএ’র নির্দেশনা অনুসারে যেন ভাড়া নির্ধারণ করা হয়।’’

গাবতলীতে এসি পরিবহনগুলো বাড়তি ভাড়া আদায় করছে এমন অভিযোগ তুলে ধরলে মন্ত্রী বলেন, ‘বিষয়টি বিআরটিএ’র বিশেষভাবে নজর দেয়া উচিত ছিল। এসি গাড়ী চলবে, এসি গাড়িতে যাত্রীরাও উঠবে। কিন্তু এখানে একটা ভাড়া নির্ধারণ করা একেবারেই আবশ্যক। এখানে মালিক সমিতির নেতৃবৃন্দও আছেন। আমি তাদেরও বলছি। বিআরটিসিকেও আমি বলেছি, এসি গাড়ীর ভাড়া যেন সাধ্যের মধ্যে হয়।’’

ঈদযাত্রায় এবারের মত এতো ভাল রাস্তা বাংলাদেশের ইতিহাসে আর হয় নি এমন মন্তব্য করে তিনি বলেন, যদি শৃঙ্খলা থাকে তবে সড়কে কোনও অসুবিধা নেই। শৃঙ্খলা মেনে চললে যানজট ও দুর্ঘটনার আশঙ্কা অতীতের যে কোনও সময়ের চেয়ে কমে যাবে বলে তিনি মন্তব্য করেন।

পরিবহন মালিকদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘‘মালিকদের বলছি, আপনারা আপনাদের ড্রাইভারদের কাউন্সেলিং করেন, যাতে তারা রং-সাইডে চলাচল না করে। একটু যানজট কোনও কারণে হলে তাদের সবারই ধৈর্য্য নষ্ট হয়ে যায় এবং রং-সাইডে যাওয়ার একটা প্রবণতা দেখা দেয়। রং-সাইডে না গিয়ে ও বেপরোয়া গতিতে গাড়ি চলাচল না করতে আপনারা পরামর্শ দেবেন।’’

দূরপাল্লার যাত্রায় যানজটের কোনও শঙ্কা নেই উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘‘এবারের ঈদের যাত্রা অতীতের যে কোনও সময়ের চাইতে অনেক স্বস্তিদায়ক হবে। এখন পর্যন্ত কোথাও যানজট সৃষ্টি হয় নি। তবে আজকে থেকে ঈদযাত্রায় চাপ বাড়বে। তারপরেও সড়কের কারণে কোথাও যানজট হওয়ার শঙ্কা নেই। আমি আজকে প্রথমেই গাবতলীতে এসেছি। এখানে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। ভিজিল্যান্স টিম আছে। আইন-প্রয়োগকারী সংস্থা ট্রাফিক-র‌্যাবসহ এখানে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। অতিরিক্ত ভাড়া যাতে কেউ না নিতে পারে সে ব্যাপারেও ব্যবস্থা আছে। দূরপাল্লার যাত্রায় কোথাও চাঁদাবাজি না হতে পারে সে ব্যাপারেও পুলিশ সতর্ক অবস্থানে থাকবে। প্রশাসন থাকবে। এমন ব্যবস্থা নিশ্চিত করা হয়েছে।

তিনি বলেন, ‘‘আমি নৌ পরিবহন মন্ত্রণালয়ের সঙ্গেও কথা বলেছি। যাতে ফেরি পারাপারে কোনও সমস্যা না হয়। এখন পর্যন্ত কোনও প্রকার অভিযোগ পায় নি।’’

আস/এসআইসু

Facebook Comments