ঈদ বাজারে মূল্যের সামঞ্জস্য বজায় রাখতে প্রশাসনের কর্মকর্তাদের তাৎপরতা

আবু রায়হান রাসেল, নওগাঁ প্রতিনিধি

ঈদ বাজারে জনসাধারণের ভোগান্তি ঠেকাতে নওগাঁ বাজারে কাপড়ের দোকান গুলোতে জেলা প্রশাসক মিজানুর রহমানের নির্দেশনায় অভিযান চালিয়েছেন ভ্রাম্যমান আদালত। এসময় কাউকে জরিমানা না করলেও, মূল্যের সামঞ্জস্যের অনিয়ম অভিযোগ পেলেই ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান বিজ্ঞ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. মহিউদ্দিন।

একই ধারাবাহিকতায় নওগাঁর পুলিশ সুপার, ইকবাল হোসেন পিপিএম নিজেই ক্রেতা সেজে জেলার বিভিন্ন উপজেলার মার্কেটের দোকন গুলোতে গিয়ে বিক্রেতাদের সাথে মূল্যের সামঞ্জস্য ও সার্বিক বিষয়ে মত বিনিময় করাসহ অগ্নি প্রতিরোধক সিলিন্ডার ও সিসি ক্যামেরা ব্যাবহারে উৎসাহ প্রদান করেন।

নওগাঁ জেলা গোয়েন্দা শাখার অফিসার ইনচার্জ কে.এম সামছুদ্দিন বলেন, পুলিশ সুপার স্যার এর নির্দেশনায় আমারা ঈদুল ফিতর উপলক্ষে সাধারণ মানুষ যাতে নির্বিঘনে কেনাকাটা করতে পারেন ও মূল্যের সামঞ্জস্য থাকতে, প্রতিদিনই শহরের শপিংমহল গুলোতে পরিদর্শন করেন।
জেলা গোয়েন্দা শাখার বিভাগের মধ্যে শ্রেষ্ঠ অফিসারে ভূষিত এস.আই (নি:) মো. মিজানুর রহমান মিজান, এস.আই নজরুল ইসলাম মুকুল ও সঙ্গীয় ফোর্স বলেন ছদ্দবেশ ধারণ করে বিশেষ কৌশলে অবলম্বন করছি যেন আগত ক্রেতারা পকেটমার মলমপার্টি অজ্ঞানপার্টিসহ নকল মুদ্রার খপ্পরে যেন কেহ প্রতারণায় না পড়ে।

প্রশাসনের কর্মকর্তারা। এরই ধারাবাহিকতায় আজও নওগাঁ বাজারের জোসনার মেলা, শিলামনি, বাকুড়া বস্তালয় ও পাবনা সাড়ীঘর শপিং মহলসহ বিভিন্ন কাপড়ের দোকানে পরিদর্শন করেন, এ সময় উপস্থিত ছিলেন আরোও বিজ্ঞ পিপি এ্যাডভোটেক আব্দুল খালেক।

এসময় শাড়ি, থ্রী-পিছসহ বিভিন্ন কাপড়ের ক্রয় ও বিক্রয় মূল্যের মধ্যে সামঞ্জস্য আছে কিনা সে বিষয়টি যাচাই করা হয়। এসময় বেশি লাভের আশায় ক্রেতাদের কাছ থেকে অতিরিক্ত মূল্য আদায়ের অভিযোগ পাওয়া গেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানানো হয়।

আস/এসআইসু

Facebook Comments