আত্মপক্ষ সমর্থনের আগে ব্যবস্থা না নেয়ার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

আলোকিত সকাল ডেস্ক

আত্মপক্ষ সমর্থনের আগে প্রিয়া সাহার বিরুদ্ধে কোনো আইনগত ব্যবস্থা না নেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রোববার (২১ জুলাই) দুপুর ১২টায় রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে মেট্রোরেল সংক্রান্ত এক অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

প্রধানমন্ত্রীর বরাত দিয়ে কাদের বলেন, ‘প্রিয়াকে আত্মপক্ষ সমর্থনের সুযোগ দেওয়া হবে। তার মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে গিয়ে ট্রাম্পের সঙ্গে সাক্ষাতে কথা বলার বিষয়টি এবং এর পেছনে কোন ষড়যন্ত্র আছে কি না সেসব বিষয় এখনো পরিষ্কার নয়।’

‘প্রিয়া সাহার বিষয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র আসলে কি বলেছে’, জানতে চাইলে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘প্রিয়া সাহার যে বক্তব্য, যেটা বিরূপ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি করেছে এবং কমিউন্যাল একটা বিষয় এখানে আছে, ভেরি সেনসেটিভ ইস্যু। দেশের বাইরে গিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্টের কাছে এ ধরনের বক্তব্য তিনি কেন দিয়েছেন? সেটা দেশে ফিরে এলেই বোঝা যাবে। আমার মনে হয় তারও আত্মপক্ষ সমর্থনের সুযোগ থাকা উচিত। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, আমাদের লিডার শেখ হাসিনা গতরাতে আমাকে একটা ম্যাসেজ পাঠিয়েছেন, সেটা হচ্ছে যে তড়িঘড়ি করে কোন সিদ্ধান্ত নেয়ার প্রয়োজন নেই।

প্রিয়া সাহা যা বলেছে, তিনি আসলে কি বলেছেন, কি বলতে চেয়েছেন। তার একটা পাবলিক স্টেটমেন্ট করা উচিত, আত্মপক্ষ সমর্থনের একটা সুযোগ থাকা উচিত। তার আগে কোন লিগ্যাল প্রসেডিংস, কোন প্রকার মামলা শুরু না করতেই মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নির্দেশ দিয়েছেন। আমাদের মাননীয় মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রীর একটা মামলা করার কথা ছিল, বিষয়টি তাকে আমি জানিয়েছি, যে এ ধরনের মামলার প্রসিডিংস শুরু না করতে, এবং মাননীয় আইন মন্ত্রীর সঙ্গেও আমার এ ব্যাপারে কথা হয়েছে। প্রিয়া সাহার ব্যক্তিগত বাড়িঘর যাতে প্রটেকটিভ থাকে সে বিষয়ে স্টেপ নেওয়া হয়েছে। এ ব্যাপারে মাননীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকেও মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর মেসেজ আমি জানিয়েছি।

অপর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমাদের মাননীয় আইনমন্ত্রী বলেছেন, যে মামলা অগ্রাহ্য করা হয়েছে। যে ব্যারিস্টার মামলা করতে গিয়েছিলেন, সেই মামলা অগ্রাহ্য করা হয়েছে। সরকারের অনুমতি ছাড়া রাষ্ট্রদ্রোহী মামলা করাও যাবে না। প্রিয়া সাহা যে অভিযোগটা করেছেন, সে প্রসঙ্গে তার বক্তব্যটা আমাদের জানা দরকার, জাতির জানা দরকার। তার আগে কোন প্রকার স্টেপ নিতে যাবো না।

তিনি আরও বলেন, আপনারা মার্কিন রাষ্ট্রদূতের বক্তব্য শুনেছেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকেও আমি তার বক্তব্য জানিয়েছি।

‘বর্তমান প্রেক্ষাপটে প্রিয়া সাহা দেশে আসবে? কি মনে করেন?,’ জানতে চাইলে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘দেশে আসবে না কেন? এখানে আমি হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের রানা দাস গুপ্তের সঙ্গে কথা বলেছি। তিনিও বলেছেন, এই বক্তব্য প্রিয়া সাহার ব্যক্তিগত। এর সাথে হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের কোন সম্পর্ক সেই। দেশে আসার অধিকার তার আছে। তার দেশে আসায় আমরা কোন প্রতিবন্ধকতা তো সৃষ্টি করছি না।

তিনি দেশে না আসলে সরকারের পক্ষ থেকে কোন ব্যবস্থা নেওয়া হবে কিনা? জানতে চাইলে কাদের বলেন, আমার কোন মনে হয় তিনি যেখানে স্বতঃস্ফূর্ত দেশে আসতে পারেন, সেখানে সরকারের পক্ষ থেকে ব্যবস্থা নেয়ার কোন কারণ নেই।

মন্ত্রী এ সময় আরও বলেন, এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক (এডিবি) অর্থায়ন করবে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের ফোর লেনের কাজের। তিনি আরও জানান, শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশন পর্যন্ত ১৬ কিলোমিটার পাতাল রেল হবে, যার ৬টি লাইনের কাজ সম্পন্ন হবে ২০৩০ সালে।

আস/এসআইসু

Facebook Comments