আইসিসির হাস্যকর নিয়ম!

আলোকিত সকাল ডেস্ক

বিশ্বকাপ ফাইনাল গড়াল সুপার ওভার পর্যন্ত। সেখানেই টাই। প্রথমে ব্যাট করে সুপার ওভারে ইংল্যান্ড তুলল ১৫ রান। জবাবে ব্যাট করতে নেমে নিউ জিল্যান্ডও তুলল ১৫। কিন্তু ম্যাচ জিতে নিল ইংল্যান্ড। বিশ্বকাপও। কারণ, আইসিসির নিয়ম অনুযায়ী ম্যাচ টাই হওয়ার পর সুপার ওভারের মীমাংসা না হলে যে দল দল সেই ম্যাচে বেশি সংখ্যক বাউন্ডারি মেরেছে তাদের জয়ী বলে ঘোষণা করা হবে। কিন্তু আইসিসির এমন নিয়ম মেনে নিতে পারছেন না অনেকে। নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসনও বললেন, খেতাব জয়ের এত কাছে এসে এমন হার মেনে নেওয়া কষ্টকর। এ খবর দিয়েছে ভারতীয় গণমাধ্যম ২৪ ঘন্টা।

গোটা ম্যাচে লড়াকু মানসিকতার পরিচয় দিয়েছেন নিউ জিল্যান্ডের ক্রিকেটাররা। আর তাই নিউজিল্যান্ডের জন্য ক্রিকেট সমর্থকদের এত খারাপ লাগা! তবে অনেকেই বলেছেন, বাউন্ডারির নিরিখে ম্যাচের ফল ঘোষণার নিয়ম হাস্যকর। সরব হয়েছেন গৌতম গম্ভীরও। বিশ্বকাপ ফাইনালে ১৪টি চার ও দুটি ছক্কা হাঁকিয়েছিল নিউজিল্যান্ড। ইংল্যান্ডের খাতাতেও ছিল দুটি ছক্কা। কিন্তু তারা ২২টি বাউন্ডারি মেরেছিল। তাই বাউন্ডারি কাউন্ট এর নিরিখে ইংল্যান্ডকে জয়ী ঘোষণা করা হয়।

২০১১ বিশ্বকাপজয়ী ভারতীয় দলের অন্যতম সদস্য গৌতম গম্ভীর আইসিসিকে এক হাত নিলেন। টুইটারে লিখলেন, ‘আমি বুঝলাম না বিশ্বকাপ ফাইনালের মতো এমন একটি গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচের ভাগ্য কীভাবে বাউন্ডারির সংখ্যা দিয়ে নির্ধারিত হয়! এটি আইসিসির হাস্যকর নিয়ম। ম্যাচটা টাই ঘোষণা করা উচিত ছিল।’ অর্থাৎ যৌথ চ্যাম্পিয়ন ঘোষণা করা উচিত ছিল বলে মনে করেন গম্ভীর।

আস/এসআইসু

Facebook Comments