অরাজনৈতিক ইস্যুতেই আ.লীগের চ্যালেঞ্জ

আলোকিত সকাল ডেস্ক

বর্তমান রাজনীতির মাঠে অনেকটাই নীরব সরকারবিরোধী রাজনৈতিক দলগুলো। সরকারবিরোধী ওই রাজনৈতিক দল নীরব থাকলেও অরাজনৈতিক ইস্যুতেই বেশ কিছু চ্যালেঞ্জের মধ্য পড়েছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ।

তবে দলটির টার্গেট, যেকোনো চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করে সকল সমস্যা দূর করা। এ জন্য দলীয় নেতাকর্মীদের নির্দেশনা দিয়েছেন দলটির হাই-কমান্ড।

সূত্র মতে, পদ্মা সেতুতে মাথা লাগবে এমন গুজবে দেশজুড়ে ছড়িয়ে পড়েছে ‘ছেলেধরা’ আতঙ্ক। বিশেষ করে সমপ্রতি ছেলেধরা সন্দেহে বিভিন্ন স্থানে অন্তত ১০ জনকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে। এসব ঘটনায় বেশ কয়েকজনকে গণপিটুনি দিয়ে গুরুতর আহত করা হয়েছে।

যা নিয়ে সারা দেশেই অভিভাবকদের মধ্যেও উদ্বেগ দেখা দিয়েছে। আবার কোথাও কোথাও অভিভাবকরা শিশুদের নিয়মিত স্কুলে পাঠাতে ভয় পাচ্ছেন।

সাধারণ মানুষের মধ্যে ছেলেধরা আতঙ্ক বিরাজ করলেও বিষয়টি গুজব বলেই জানাচ্ছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। এ জন্য পুলিশ বাহিনীর পক্ষে থেকে বেশ কিছু এলাকাতে জনসাধারণকে সচেতন করতে মাইকিংসহ বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে।

এদিকে রাজধানীসহ সারা দেশে এডিস মশাবাহিত রোগ ডেঙ্গুজ্বর ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে। এরই মধ্যে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে বেশ কয়েকজন মানুষ মারাও গেছে। সরকারি হিসাবে মৃতের সংখ্যা আট। তবে বেসরকারি হিসাবে এ সংখ্যা ২৮।

আক্রান্ত হয়েছে প্রায় সাড়ে সাত হাজার মানুষ। বলতে গেলে ডেঙ্গু এবার মহামারি রূপ নিয়েছে। হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন ও কন্ট্রোল রুমের সঙ্কলন অনুযায়ী, এ বছর সাত হাজার ১৭৯ জন ডেঙ্গু রোগী বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। এর মধ্যে মারা গেছে আটজন। তবে বেসরকারি হিসাবে মারা গেছে ২৮ জন।

তবে অনেকেই ধারণা করছেন, সিটি কর্পোরেশনের মশার ওষুধ কার্যকর হয়নি বলেই ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে।

তবে পদ্মা সেতুতে মাথা লাগবে এমন গুজবে দেশজুড়ে ছড়িয়ে পড়েছে ‘ছেলেধরা’ আতঙ্ক এবং রাজধানীসহ সারা দেশে ডেঙ্গুজ্বরের ভয়াবহ আকারসহ বিভিন্ন ইস্যুতে সৃষ্ট সকল সামাজিক অপরাধের জন্য ক্ষমতাসীন আ.লীগকে দায়ী করছে সরকারবিরোধী রাজনৈতিক দলগুলো।

এমন পরিস্থিতিতে ওই সকল গুজবকে চ্যালেঞ্জ হিসেবে দেখছে ক্ষমতাসীন দলটি। তাদের টার্গেট যেকোনো মূল্যে এই সকল সামাজিক সমস্যা দূর করা এবং দেশের জনসাধারণের মধ্যে স্বস্তি ফিরিয়ে আনা।

আ.লীগের রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা মনে করেন, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নিরষ্কুশ বিজয় অর্জন করে টানা তৃতীয় মেয়াদে সরকার গঠন করে আ.লীগ। শুধু জাতীয় নির্বাচন নয়, ইতোমধ্যে স্থানীয় সরকার নির্বাচনের সুফলও ঘরে তুলে দেশের মানুষের ভাগ্যের উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে ক্ষমতাসীন দলটি।

এমন পরিস্থিতিতে ফের মাঠে সক্রিয় হয়ে উঠেছে আ.লীগবিরোধী রাজনৈতিক অপশক্তি। মূলত ওই সকল রাজনৈতিক অপশক্তির টার্গেট যেকোনো মূল্যে আ.লীগকে দেশের মানুষের কাছে বিতর্কিত করা।

তবে এই সকল বিতর্ক এড়াতে কঠোর অবস্থানে রয়েছে ক্ষমতাসীন দলটি। এ জন্য যেকোনো চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করার জন্য দলীয় নেতাকর্মীদের নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। দলীয় নির্দেশনা পেয়ে গুজবের বিরুদ্ধে কাজ শুরু করেছেন তারা।

আওয়ামী লীগের প্রচার-প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, পদ্মা সেতু যারা চায় না, তারাই গুজব রটানোর হোতা। তাদের রাজনৈতিক পরিচয় জানা গেছে। অনেককে চিহ্নিত করেছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা।

সেই তালিকা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে এসেছে। অতীতেও তারা নৃশংস ঘটনা ঘটিয়ে দেশকে অস্থিতিশীল করার চেষ্টা করেছে। গুজব মোকাবিলায় পাড়া-মহল্লায় সর্তক অবস্থানে থেকে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে সার্বিকভাবে সহযোগিতা করার নির্দেশ দিয়েছে আ.লীগ।

একই সঙ্গে গুজব সৃষ্টিকারী কুচক্রীমহলকে আইন প্রয়োগকারী সংস্থার হাতে তুলে দেয়ার আহ্বানও জানানো হয়েছে। আ.লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বি এম মোজাম্মেল হক আমার সংবাদকে বলেন, আ.লীগ যখন দেশ ও দেশের মানুষের উন্নয়নের জন্য কাজ করে, ঠিক তখনি স্বাধীনতাবিরোধী শক্তিগুলো সক্রিয় হয়ে ওঠে এবং সেই কাজে বাধাসৃষ্টি করে।

এসময় তারা নানা ধরনের গুজব সৃষ্টি করে সাধারণ মানুষের মধ্যে আতঙ্ক তৈরি করে। তিনি বলেন, স্বাধীনতাবিরোধী শক্তিগুলোই ‘ছেলেধরা’ নামে গুজব সৃষ্টি করেছে। এই সকল গুজবকে মোকাবিলা করেই দেশের মানুষের ভাগ্যের উন্নয়নের জন্য আ.লীগ কাজ করে যাবে।

আস/এসআইসু

Facebook Comments