অংশগ্রহণকারী ১০ দলের সর্বোচ্চ ওয়ানডে স্কোর

আলোকিত সকাল ডেস্ক

হিসেব কষতে কষতে বিশ্বকাপের ক্ষণগণনা নেমে এসেছে এক সংখ্যায়। আর ৮ দিন পর ওভালে ইংল্যান্ড ও দক্ষিণ আফ্রিকা ম্যাচ দিয়ে পর্দা উঠতে যাচ্ছে দ্বাদশ বিশ্বকাপ আসরের। এদিকে ক্রিকেট প্রেমিরা অধীর আগ্রহে বসে আসে বিশ্বকাপ মহাযজ্ঞ চোখে দেখার জন্য। সেই সঙ্গে বিশ্বকাপের পুরনো ইতিহাসগুলোও শেষ মুহূর্তে ঝালিয়ে নিচ্ছেন তারা।

বিশ্বকাপে এবারের আসরে অংশগ্রহণকারী দলের সংখ্যা ১০। দৈনিক জাগরণের বিশ্বকাপ বাউন্ডারির আজকের বিশেষ আয়োজনে সেই ১০ দলের আন্তর্জাতিক ওয়ানডেতে
সর্বোচ্চ রানের হিসেবে নিয়ে আলোচনা করা হলো :

১. ইংল্যান্ড – ৪৮১/৬ : ২০১৮ সালের ১৯ জুন চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে নটিংহ্যামের ট্রেন্টব্রিজে ৪৮১ রানের অবিশ্বাস্য সংগ্রহ গড়ে ইংল্যান্ড। ওপেনার অ্যালেক্স হেলসের ১৪৭ ও জনি বেয়ারস্টোর ১৩৯ রানের সুবাদে এই দলীয় স্কোর পায় থ্রি-লায়ন্সরা। জবাব দিতে নেমে ২৩৯ রানেই গুটিয়ে যায় অজিরা।

২. শ্রীলঙ্কা – ৪৪৩/৯ : ওয়ানডে ক্রিকেটে শ্রীলঙ্কার সর্বোচ্চ দলীয় স্কোর ৪৪৩ রান। ২০০৬ সালের ৪ জুলাই নেদারল্যান্ডের বিপক্ষে এ সংগ্রহ গড়ে লঙ্কানরা। যা ওয়ানডে ক্রিকেটে এখন পর্যন্ত দ্বিতীয় সর্বোচ্চ দলীয় স্কোর। অ্যামসটেলভীনে সনাৎ জয়সুরিয়ার ১৫৭ ও তিলকরত্নে দিলশানের ১১৭ রানের উপর ভর ৯ উইকেট হারিয়ে সেদিন এই সংগ্রহ পায় শ্রীলঙ্কা।

৩. দক্ষিণ আফ্রিকা – ৪৩৯/২ : অবসর নেয়ার আগে কিংবদন্তি ব্যাটসম্যান এবি ডি ভিলিয়ার্স ঝলক দেখান ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে। জোহানেসবার্গে ১৮ জানুয়ারি ২০১৫ ক্যারিবিয়দের বিপক্ষে মাত্র ৪৪ বলে ১৪৯ রানের ইনিংস খেলে দক্ষিণ আফ্রিকাকে ৪৩৯ রানের সংগ্রহ এনে দেন তিনি। এ ম্যাচেই মাত্র ৩১ বলে সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে দ্রুততম সেঞ্চুরির মালিক বনে যান এবি ডি!

৪. অস্ট্রেলিয়া – ৪৩৪/৪ : অস্ট্রেলিয়ার তাদের ক্রিকেট ইতিহাসে সর্বোচ্চ দলীয় স্কোর পায় জোহানেসবার্গে স্বাগতিক দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে। ২০০৬ সালের ১২ মার্চ রিকি পন্টিংয়ের ১৬৪ রান এবং অ্যাডাম গিলক্রিস্ট, মাইকেল হাসি ও সাইমন ক্যাটিচের হাফ সেঞ্চুরির উপর ভর দিয়ে ৪ উইকেট হারিয়ে ৪৩৪ রানের স্কোর গড়ে অজিরা।

৫. ভারত – ৪১৮/৫ : শচীন টেন্ডুলকারের প্রথম ডাবল সেঞ্চুরির রেকর্ড ভেঙে ১৪৯ বলে ২১৯ রান করে ভারতকে ওয়ানডে ইতিহাসের সর্বোচ্চ দলীয় স্কোর এনে দেন বীরেন্দর শেবাগ। ইন্দোরে ২০১১ সালের ৮ ডিসেম্বর ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে শেবাগের এই ডাবল সেঞ্চুরির কল্যাণে ৫ উইকেট হারিয়ে ৪১৮ রানের সংগ্রহ গড়ে ভারত।

৬. নিউজিল্যান্ড – ৪০২/২ : এবারডেনে ২০০৮ সালের ১ জুলাই আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে ব্রেন্ডন ম্যাককালাম ও জেমস মার্শালের সেঞ্চুরির সুবাদে ওয়ানডে ক্রিকেটে নিজেদের সর্বোচ্চ রানের সংগ্রহ পায় নিউজিল্যান্ড। ম্যাককালামের ১৩৫ বলে ১৬৬ এবং মার্শালের ১৪১ বলে ১৬১ রানে কিউইরা থামে ৪০২ রান করে।

৭. পাকিস্তান – ৩৯৯/১ : ২০ জুলাই, ২০১৮ সালে বুলাওয়েতে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে মাত্র ১ উইকেট হারিয়ে ৩৯৯ রানের সংগ্রহ পায় পাকিস্তান। যা এখন অব্দি ওয়ানডে ক্রিকেট ক্রিকেট ইতিহাসে তাদের দলীয় সর্বোচ্চ স্কোর। পাকিস্তানের হয়ে সেদিন ডাবল সেঞ্চুরি হাঁকান ফখর জামান (২১০)।

৮. ওয়েস্ট ইন্ডিজ – ৩৮৯/১০ : গ্রেনেডায় ওয়ানডে সিরিজের চতুর্থ ওয়ানডেতে ইংল্যান্ডের দেয়া ৪১৮ রানের জয়ের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ৩৮৯ রানে থামে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ইনিংস। যা তাদের ওয়ানডে ইতিহাসে সর্বোচ্চ দলীয় সংগ্রহ। মাত্র ৯৭ বলে ১৬২ রানের ইনিংস খেলেন ‘ইউনিভার্সাল বস’ ক্রিস গেইল।

৯. আফগানিস্তান – ৩৩৮/১০ : দলের তৎকালীন অধিনায়ক আসগর আফগানের দুর্দান্ত সেঞ্চুরির উপর ভর দিয়ে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে ২০১৭ সালে নিজেদের ওয়ানডে ইতিহাসে সর্বোচ্চ দলীয় সংগ্রহ পায় আফগানিস্তান। গড়ে ৩৩৮ রানের স্কোর।

১০. বাংলাদেশ – ৩২৯/৬ : বিশ্বকাপে অংশ নিতে যাওয়া দলগুলোর মধ্যে বাংলাদেশের দলীয় স্কোরই সবচেয়ে কম। মিরপুরে ২০১৫ সালের ১৭ এপ্রিল পাকিস্তানের বিপক্ষে ৬ উইকেট হারিয়ে ৩২৯ রানের সংগ্রহ গড়ে বাংলাদেশ। সেদিন টাইগারদের হয়ে ওপেনার তামিম ইকবাল ১৩২ রান করার পর মুশফিকুর রহিমের ব্যাট থেকে আসে ১০৬ রানের ঝড়ো ইনিংস।

আস/এসআইসু

Facebook Comments